মানুষ হঠাৎ হনুমান হয়ে ৩১ টি গোটা পাহাড় কাঁধে করে নিয়ে গেলো রাজস্থানে-দেখুন

রামায়ণের ঘটনার পূনরাবৃতি, কি করে সম্ভব হলো এই আশ্চর্য ব্যপার। মানুষ কিনা গোটা পাহাড় তুলে নিয়ে যাচ্ছে কাঁধে করে? দেখুন এখানে। উত্তর ভারতের বিভিন্ন পাহাড়ি এলাকায় অবৈধ নির্মাণের ফলে বন্যার আশঙ্কা বাড়ছে। পাশাপাশি খনি মাফিয়াদের দৌরাত্মে অন্যান্য রাজ্যও বিপন্ন। এনিয়ে কড়া পদক্ষেপ নিল সুপ্রিম কোর্ট।

সম্প্রতি সুপ্রিম কোর্টের  একটি মামলায় দেখা যাচ্ছে এই গত কয়েক বছরে উধাও হয়ে গিয়েছে রাজস্থানে আরাবল্লী রেঞ্জে থাকা প্রায় ৩১ পাহাড়। ফলে বাধ্য হয়েই রাজস্থানে ১১৫.৩৮ হেক্টর জমিতে এই বেআইনি খনন বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছে  শীর্আষদালত। আর তা করে ফেলতে হবে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে। ফরেস্ট সার্ভে অব ইন্ডিয়ার একটি তথ্য  ওই পাহাড় উধাও হওয়ার ঘটনাটি সামনে এসেছে আদালতের। যা নিয়ে বিপাকে প্রশাসন।

Loading...

মঙ্গলবার ওই মামলার রায় দিতে গিয়ে শীর্ষ আদালতের বিচারপতি মদন বি লোকুর ও বিচারপতি দীপক গুপ্তার বেঞ্চ মন্তব্য করে, আরাবল্লীর পাহাড়ি এলাকায় খনন কার্য করার ফলে রাজস্থান সরকার প্রতি বছর ৫০০০ কোটি টাকা আয় করে থাকে। কিন্তু তার জন্য দিল্লির লাখ লাখ মানুষের জীবন বিপন্ন হতে পারে না। রাজধানীতে যে ভয়ানক দূষণ তার একটা কারণ ওই পাহাড় উধাও হয়ে যাওয়া হতে পারে। তাই অবিলম্বে ব্যবস্থা নিতে হবে।

বিচারপতি লোকুর রাজস্থান সরকারের আইনজীবীকে প্রশ্ন করেন, ‘৩১টি পাহাড় উধাও হয়ে গিয়েছে। দেশ যদি একের পর এক পাহাড় উধাও হয়ে যায় তাহলে দেশের কী হবে? মানুষ কি হনুমান হয়ে গিয়েছে যে পাহাড় কাঁধে তুলে নিয়ে পালাচ্ছে? রাজস্থানের ১৫-২০ শতাংশ পাহাড় উবে গিয়েছে। এনিয়ে কবে ব্যবস্থা নেবেন?’

অবৈধ খনন নিয়ে রাজ্য সরকার কী ব্যবস্থা নিচ্ছে তা ২৯ অক্টোবরের মধ্যে জানাতে নির্দেশ দেয় শীর্ষ আদালত। সরকারের বিরুদ্ধে কেন এমন অভিযোগ উঠছে তারও ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়েছে। দেখা যাক পরে কি হয়।

Source: Zee 24 Ghanta

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *