ডাবের জল খাওয়ার দশটি উপকারিতা, গুণ-জানুন এখানে ক্লিক করে (শেয়ার করুন)

  1. ব্লাড প্রেশার নিয়ন্ত্রণঃ ডাবের জল ব্লাড প্রেশার নিয়ন্ত্রণে একটি কার্যকরী দাওয়াই। ডাবের জলে আছে ম্যাগনেশিয়াম, পটাশিয়াম ও ভিটামিন সি সহ আরও অনেক উপাদান যা ব্লাড প্রেশার নিয়ন্ত্রণ করে। এটিতে চিনি জাতীয় উপাদান থাকে একটু তাই ডায়াবেটিস রোগীদের এটি এড়িয়ে চলা উচিত।
  2. ডি-হাইড্রেশনঃ গরমকালে অতিরিক্ত ঘামের ফলে শরীরের অনেকাংশ জল বেরিয়ে যায়, কখনো কখনো অতিরিক্ত গরমের ফলে শরীর থেকে প্রয়োজনীয় জল বেরিয়ে বমি বা ডিহাইড্রেশনের মত সমস্যা তৈরি হতে পারে। এই সব মোকাবিলায় ডাবের জলের জুড়ি মেলা ভার।
  3.  হার্ট ভালো রাখেঃ ডাবের জল হার্টের রোগ নিরাময়ে এক কার্যকরী দাওয়াই, এটা প্রমাণিত ডাবের জল গ্রহনের ফলে হার্ট এ্যাটাকের সম্ভাবনা অনেক কমে। তাছাড়া হাইপার টেনশনে এটি কার্যকরী।
  4.  হাড় মজবুত করেঃ ডাবের জলে আছে পটাশিয়াম, ক্যালশিয়াম সহ বেশ কিছু কার্যকরী উপাদান যা হাড় গঠনে সাহায্য করে, হাড়কে দৃঢ় করে, হাড়ের গঠন মজবুত হয় ও সামগ্রিক সুস্থতা বজায় থাকে।

    ত্বক সমস্যায় ডাবের জল
  5.  ত্বকের ট্যানঃ আপনি এই রোদে বাইরে গেছেন? চামড়ার ট্যান পড়া থেকে মুক্তি পেতে ব্যবহার করতে পারেন ডাবের জল। কারণ এটি প্রাকৃতিক ট্যান রিমুভার যা ট্যান ছাড়াও ত্বকের অন্যান্য স্পট দূর করতেও সাহায্য করে।
  6.  টোনারঃ ডাবের জল প্রাকৃতিক টোনার যা পিগমেনটেশনও দূর করে।
  7.  ত্বকের ইনফেকশনঃ ডাবের জলে আছে এমন অ্যান্টিফাঙ্গাল ও অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল গুণ যা ত্বকের ইনফেকশন দূর করতে সাহায্য করে।
  8.  অয়েলি ত্বকের জন্যঃ যাদের জ্বক বড্ড অয়েলি তাদের ক্ষেত্রে ডাবের জলের জুড়ি মেলা ভার। দাবের জল অয়েলি ভাব দূর করার পাশাপাশি প্রাকৃতিক ময়েশ্চারাইজার হিসেবে কাজ করে। তবের সজীবতা বজায় রাখে।
  9.  গ্লোয়িং এজেন্টঃ ডাবের জলে আছে এমন কিছু গ্লোতিং এজেন্ট যা ত্বকের উজ্জলতা বৃদ্ধি করে। ডাবের জলে মুখ ধুয়েই দেখুন পার্থক্যটা নিজেই বুঝতে পারবেন।
  10.  চুল পড়া মোকাবিলাঃ ডাবের জলে আছে এমন কিছু উপাদান যা চুল পড়া কমায়, দাবের জল মাথার রক্ত সঞ্চালন বৃদ্ধি করে তাই চুলপড়া অনেকাংশে কমে। চুলকে নরম ও সিল্কি করে, তাছাড়া চুলে রুক্ষতা দূর করতেও এর জুড়ি মেলা ভার।

ভালো লেগে থাকলে অবশ্যই শেয়ার করুন…

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *