সব বন্ধ! পর্ণ দেখাতে এই ব্যবস্থা করে দিলো পর্ণহাব, সবাই দেখছে এভাবেই

ভারতে পর্ন ব্যান। যার ফল স্বরূপ পর্নহাব, এক্স ভিডিওস-সহ শতাধিক এক্স-এক্স-এক্স ওয়েবসাইট দেখতে পারছেন না কেউই। নেটওয়ার্কগুলোকেও বলে দেওয়া হয়েছে তারা যেন কোনও ভাবেই পর্ন ওয়েবসাইটের দরজা না খুলে দেয়। আর সেকারণেই এয়ারটেল, ভোডাফোন, জিও-র মতো আনলিমিটেড ডেটা পরিষেবা প্রদানকারী টেলিকম সংস্থার নেটওয়ার্ক থেকে আর পর্নসাইট দেখা যাচ্ছে না। এমন অবস্থায়, পর্নের রমরমা জারি রাখতে নতুন পথ অবলম্বন করল পর্নহাব।

জানেন ইতিমধ্যে সারাভারত জুড়ে পর্ণ দেখার জন্য সবাই মুখিয়ে আছে অতীতের মত। আর ভারতের বাজার পর্ণ নির্মাতা ও ওইয়েবসাইটের এক বিরাট দর্শক বলয়। সেখানে ব্যান হওয়ায় তারাও রীতিমত লসের মুখ দেখছে।

Loading...

ব্যান হওয়া ৮২৭টি ওয়েবসাইটের মধ্যে পর্নহাবের নাম ছিল  সবার শীর্ষেই। বাকি ওয়েবসাইটগুলোর মতো  পর্নহাবকেও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে একসাথে সঙ্গত কারণেই কোর্টের নির্দেশ মেনে । এই সঙ্কটজনক অবস্থায় নীল ছবির ব্যাবসা চালিয়ে যেতে পর্নহাব ডট নেট বলে অন্য একটি প্যারালাল ওয়েবসাইট খুলেছে তারা। যার ফলে পর্নহাবের দর্শকরা পর্ন দেখতে পর্নহাব ডট নেট-এর ব্যবহার করছেন আর আগের মতই দেখতে শুরু করেছেন।

Behance.net নামের একটি সংস্থা উপভোক্তাদের একটি অ্যাপলিকেশন ডাউনলোড করার জন্য প্ররোচিত করছেন। তারা বলছে্ন, ওই অ্যাপলিকেশন ডাউনলোড করলেই অতীতের মতো ফের পর্ন দেখতে পারবেন গ্রাহকরা। অনেকে সেই অ্যাপলিকেশন ডাউনলোডও করছেন। তবে ব্যবহারকারীরা যে ট্রাক হবেন না সেটাও বলা দুষ্কর।

উল্লেখ্য, সরকারের এভাবে পর্ন দর্শনে লাগাম পড়ানোর বিষয়টি অনেকেই ভাল চোখে দেখছেন না। পর্নপ্রেমীরা বলছেন, এতে নাগরিক অধিকার লঙ্ঘিত হচ্ছে। এই মর্মে, পিকে রাজাগোপাল নামের এক আইনজীবী টাইমস অব ইন্ডিয়াকে জানিয়েছেন, “চাইল্ড পর্ন এবং হিংসাত্মক বিষয় ব্যান করা সঠিক সিদ্ধান্ত এবং যুক্তিযুক্তও। তবে ন্যুডিটির মতো বিষয় ব্যান করা নীতি পুলিসি করার সমান”।

তাঁর মতে নাগরিক কী দেখবে সেটা সরকার কখনই ঠিক করে দিতে পারে না। সংবিধানের ১৯ নম্বর ধারার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, “আমাদের বাক্ স্বাধীনতার অধিকার দিয়েছে সংবিধান। সংবিধানের ১৯ নম্বর ধারাতেই এর উল্লেখ রয়েছে। এটা আমাদের মৌলিক অধিকার”।

আপনার এ বিষয়ে কি মতামত? জানান আমাদের কমেন্টে। আপনার নিজস্ব মন্তব্যও যথেষ্ট মূল্যবান।

তথ্যসূত্রঃ Zee 24 Ghanta

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *