শাহরুখ খানকে ল্যাং মেরে নতুন রোমান্স কিং টলিউডের দেব।জেনে নিন কিভাবে?

বাঙালি চিরকাল ঘরের থেকে পর’কে বড় করে দেখেছে,পর’কে বেশী ভালোবেসে এসেছে।নিজের বাবা-মা কে বৃদ্ধাশ্রমে পাঠিয়ে সমাজ কল্যাণকর দায়িত্বের বুকনি ঝাড়েন কোলকাতার বুদ্ধিজীবিরা। সুতরাং বঙ্গের আইকন হিসেবে বিবেচিত হন বোম্বের সুপারস্টার শাহরুখ খান। অন্যদিকে টলিউডের সুপারস্টার দেব’কে(দীপক অধিকারী) নিয়ে সোসাল মিডিয়ায় চলতে থাকে কুরুচিকর ব্যঙ্গ-তামাশা। আমরা ভুলে যাই উত্তম কুমারের পরে একমাত্র ‘মহানায়ক’ যদি কেউ হয়ে থাকেন,তিনি টলিউদের সর্বগুণাধার দেব,যে স্বীকৃতি স্বয়ং বলি বাদশা শাহরুখেরও নেই। যদিও এক মাঘে শীত যায় না,তাই বহু বাধা টপকে এতোদিনে উপযুক্ত শিরোপা পেতে চলেছেন টলিউডের সুপার-ডুপারহিট নায়ক। দেবের একটি ফ্যান ক্লাব সূত্রে খবর পাওয়া যাচ্ছে চলতি বছরেই আসতে চলেছে দেবের বেশ কয়েকটি সুপারহিট প্রেমের ছবি এবং তিনি হয়ে উঠতে পারেন টলিউডের সর্বকালের সেরা রোমান্স কিং।

পায়েলের সাথে জুটি বেঁধে ২০০৭ সালে প্রথম প্রেমের সিনেমা “I Love You”তে দেখা গিয়েছিল রোমান্স কিং দেবকে। যা কিনা সর্বকালের সুপারহিট উত্তম-সুচিত্রা জুটিকেও ছাপিয়ে গিয়েছিল। সেখানে কাজল-শাহরুখের “কুচ কুচ হোতা হ্যায়” অনেকখানি ফিকে।

তারপর ২০০৮-এ আবার ব্লকবাস্টার।ছবির নাম “মন মানে না”। বেল্ট ম্যান রঞ্জিত মল্লিকের মেয়ে কোয়েল মল্লিককে বগলদাবা করে টলিউডের দেব দেখালেন মাধুরী-কারিশ্মা’কে নিয়ে কোমর বেঁকিয়ে “দিল তো পাগল হ্যায়” বলে চিল্লালেই সিনেমা হিট্ হয় না।

Loading...

২০১১ তে দেব হয়ে উঠলেন “লেডি কিলার রোমিও”! সিনেমায় এম.বি.এ করা ক্যাসানোভার মতো দেব গরীব শুভশ্রীকে বিয়ে করে প্রমাণ করে দিলেন বয়স্ক কাজল-শাহরুখের “দিলওয়ালে” কোনো প্রেমের সিনেমাই নয়,আসলে তা রোহিত শেটির গ্যারেজ-শো!

২০১১ তে পাগলু এবং ২০১২ তে পাগলু-২ ভালোবাসার আকাশে যেন সূর্য এবং চাঁদ। সেখানে বিগ-বি আর তার বৌমার সাথে আঁটুলি হয়েও শাহরুখের “মহব্বতেঁ” ডাহা ফেইল!

২০১০ সালে দর্জিপাড়ার আবির(দেব) ব্যাটে-বলে দেখিয়ে দিলেন শাহরুখের “চক্ দে ইন্ডিয়া”-কে কিভাবে ছক্কা বানানো যায়। “লে-ছক্কা”-ওভার বাউন্ডারি!

২০০৯ সালে “পরাণ যায় জ্বলিয়া”-তে দেবের সাথে ব্রিটিশ অ্যানা’র প্রেমের কাহিনী বাঙালীর চোখে এনেছিল অকাল বারিধারা। পাশাপাশি শাহরুখ-ঐশ্বর্য্যর “দেবদাস” যেন মাচার  বেহুলা-লকাইয়ের যাত্রাপালা।

২০১৪ সালে “যোদ্ধা”-তে রূদ্রের ভূমিকায় সুপারস্টার দেব যেন স্বয়ং মহেশ্বরের স্বরূপ। শোনা যায় সিনেমা দেখার পরে অনেক যুবতী মেয়ে রূদ্রের মতো স্বামী পেতে শিবরাত্রিতে দেবের ফটোয় জল ঢেলেছেন।পাশাপাশি শাহরুখের “অশোকা” যেন পুতুল নাচের ইতিকথা।

২০১৩ সালের শাহরুখের “চেন্নাই এক্সপ্রেস”২০১৬ সালের দেবের “লাভ এক্সপ্রেস”-এর কাছে টোটাল খিল্লিতুল্য!বকমার্কা দীপিকা পাদেকনের সাথে নাটা শাহরুখ চরম বেমানান।
অবশেষে ২০১৭! মহানায়ক দেবের স্বর্ণযুগ। “ককপিট” সিনেমায় নিজের জানের বাজি নিয়ে ইঞ্জিন নষ্ট এয়ারবাস দমদম বিমানবন্দরে নামিয়ে আনলেন টলিউডের মহাতারকা। “চ্যাম্প” সিনেমায় মরণপণ বক্সিং করে জিতে নিলেন চ্যাম্পিয়নশিপ।

সর্বশেষে কমলেশ্বর মুখার্জ্জীর “অ্যামাজন অভিযান”! “চাঁদের পাহাড়”-এ বুনিপ এবং ব্ল্যাক মাম্বার সাথে লড়াই জিতে শঙ্কর বেড়িয়েছিল অ্যামাজনের গভীরে। সেখানে জলে পিরানহা,কুমীর,বিষাক্ত মাকড়সা, সিংহ, মানুষখেকো আদিবাসীদের সাথে লড়াই করে বিদেশী নায়িকাকে উদ্ধার করে আনলেন আমার আপনার ঘরের ছেলে দীপক অধিকারী তথা সর্বকালের সেরা রোমান্স কিং দেব।

অন্যদিকে বলি বাদশা শাহরুখের “রা-ওয়ান” সিনেমাতে জঘন্য ভিএফএক্স এর ব্যবহার এবং বস্তাপচা চিত্রনাট্য প্রমাণ করে দেয় শাহরুখ নয় প্রকৃত মহানায়ক তো দেব-ই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *